কুচো আদায় মুরগী (Chicken Vegetable with Ginger Flakes)


Somewhereinblog-এ চোর নারী দিবসে একটা ফাটানো রেসিপি চেয়েছে, এতে আমি সত্যি বিপদে পড়ে যাই। যে ব্যাপক ক্যানভাসে আমরা নারী দিবসটিকে দেখার চেষ্টা করছি, তাতে কি হতে পারে নারী দিবসের ফাটানো রেসিপি? চোর আগা-গোড়াই রেসিপি ব্লগের একজন ভাল পাঠক। ভাবতে বসে মনে হল, এমন একটি রেসিপি যা কোন নারীর জন্য স্বীকৃতি – হতে পারে তাৎপর্য পূর্ণ। এই রেসিপিটি আমার মেঝ মেয়ের, সবজিসহ এই রান্নাটা আমাদের ঘরে খুবই প্রিয়। তবে এখানে বিশেষ ব্যাপারটা হচ্ছে এই রেসিপিটি আমাদের ঘরে শুধু ওই করে, এবং আসলে মেয়ের হাতেই এটি সবচেয়ে ভাল হয়। তাই আমি কখনোই এই রান্নাটি নিজে করি না, মেয়েকে বলি করতে, ওর জন্যে এটি নিসন্দেহে সম্মান, স্বীকৃতি আমাদের তরফ হতে। রেসিপিটিও ওরই।

উপকরণঃ

  • কিউব করা হাড় ছাড়া মুরগী’র মাংস – মাঝারী ২ বাটি
  • আদা কুচি – ১ টেবিল চামচ
  • রসুন কুচি – ১ টেবিল চামচ
  • পেঁয়াজ কুচি – ১/২ কাপ
  • কিউব করে কাটা পেয়াজ – ২ টি
  • মরিচ গুঁড়া – ১ চা চামচ
  • হলুদ গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • ধনে গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • ধনে পাতা কুচি – ১ টেবিল চামচ
  • লেবুর রস – বড় লেবু অর্ধেকটা
  • চিনি – ১/৪ চা চামচ (ডায়াবেটিক রোগী’র ক্ষেত্রে চিনি দিবেন না)
  • গরম পানি – ১ কাপ
  • লবন পরিমান মতো
  • সয়াবিন তেল – ১/২ কাপ
  • কাচা মরিচ – ৪ টা ফালি করা
  • টমেটো কুচি – ১ কাপ
  • কিউব করে কাটা টমেটো – ১ টি

এই রেসিপিটিতে সবজি দিলে এর স্বাদে ভিন্ন মাত্রা যোগ হবে। সবজি দিতে চাইলে অন্য সব উপকরণ ঠিক রেখে শুধু ১ বাটি মুরগীর মাংস (হাড় ছাড়া কিউব করা) এবং ১ বাটি সবজি দিতে হবে, যাতে করে মুরগী’র মাংস আর সবজি’র মোট পরিমান একই থাকে। তখন রেসিপিটিকে বলা যায় – “কুচো আদায় সবজি-মুরগী”, অথবা “Chicken vegetable with ginger flakes”।

কি কি সবজি দিতে পারেন?

গাজর, ক্যাপসিকাম, আলু, সীম/বরবটি, ফুলকপি, বেগুন ইত্যাদি কিউব করে কাটা। সবজি’র টুকরা গুলো যেন মুরগী’র মাংসের সমান (প্রায়) কিউব হয়, নইলে দেখতে ভাল লাগবে না।

প্রস্তুত প্রণালীঃ

১। পরিমানমতো তেল ফ্রাইপেনে দিয়ে একটু গরম হলে রসুন কুচি দিন। নাড়তে থাকুন, এ সময় চুলার আচ কমিয়ে দিন। সোনালী রঙ হলে লবন ও পেঁয়াজ কুচি দিন, নাড়তে থাকুন।

২। পেঁয়াজ বাদামী রঙ হলে কিউব করা মাংস দিন, কিছুক্ষণ নাড়ার পর সামান্য পানি দিন মাংস সিদ্ধ হওয়ার জন্য। সবজি দিলে এ সময় সবজি দিতে পারেন। আগে আলু, গাজরের মত শক্ত সবজি গুলো দিবেন।

৩। মাংস আধা সিদ্ধ হলে মরিচ, হলুদ ও ধনে গুঁড়া এবং সামান্য পানি দিয়ে কিছুক্ষণ কষাতে হবে যেন মাংসে মশলা মিশে যায়। এ সময় অন্য সবজি গুলো দিয়ে দিতে পারেন। ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন, ঢাকনা তুলে মাঝে মাঝে নেড়ে দিবেন।

৪। মাংস কষানো হলে এবং সবজি প্রায় সিদ্ধ হয়ে এলে আদা কুচি ও কাচা মরিচ দিন। একটু নেড়ে দিন, খেয়াল রাখতে হবে বেশি বা জোরে নেড়ে যেন উপকরণ গুলো ভেঙ্গে না যায়।

৫। এবার লেবুর রস ও চিনি দিয়ে একটু নেড়ে দিন। এর মধ্যে সবজি পুরোপুরি সিদ্ধ হয়ে যাবে। নামানোর আগে ধনে পাতা ছড়িয়ে দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।

৬। অন্য একটি কড়াইতে দুই চা চামচ তেল দিন, তেল গরম হলে কিউব করা পেঁয়াজের টুকরো গুলো তেলে ছেড়ে দিয়ে নাড়ুন। পেঁয়াজ খানিকটা ভাজা হয়ে বাদামী রঙের হলে কিউব টমেটো এবং সামান্য লবন দিয়ে নাড়ুন। এবার নামিয়ে নিন।

এবার পরিবেশন পাত্রে রান্না করা চিকেন ঢেলে তার উপর পেঁয়াজ ও টমেটোর কিউব গুলো ঢেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

happy wheels

About ভূলু | ভূলু'স রেসিপি

আমি 'ফজলুর নূর ভূলু'। আমার রান্নাঘরের অরিজিনাল সব রেসিপি নিয়েই আমার এই ব্লগ - "ভূলু'স রেসিপি"। এই রেসিপি ব্লগের মাধ্যমে আমি দেশি খাবার আর তার অতুলনীয় স্বাদের বৈচিত্র তুলে ধরতে চাই। সাথে আমাদের আঞ্চলিক এবং ঐতিহ্যবাহী রান্নাগুলোও থাকবে। ভবিষ্যতে এইসব রেসিপি আর ব্লগের গল্পগাঁথা নিয়ে একটি বই প্রকাশের ইচ্ছে আছে।