কাঁচামরিচে সাদা মুরগী

এই রান্নাটি চট্টগ্রামে অনেকেই খুব পছন্দ করেন। ব্রয়লার মুরগীতে করতেও কোন অসুবিধা হবেনা। আমি অবশ্য ব্রয়লারেই করেছি। উৎসবে অতিথি আপ্যায়নে করতে পারেন রেসিপিটি, সবাই খুব পছন্দ করবে। 
উপকরণঃ
কাঁচামরিচে সাদা মুরগী । ভূলু'স রেসিপি

কাঁচামরিচে সাদা মুরগী

মুরগীর মাংস – ১২ টুকরো
আদা বাটা – ১ চা চামচ
রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ
জিরা বাটা – ১/২ চামচ
ধনে গুঁড়ো – ১ চা চামচ
পেঁয়াজ কুচি – ১ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ বাটা – ২ কাপ
আস্ত কাঁচামরিচ – ৩/৪ টা
কাঁচামরিচ বাটা – ১ চা চামচ
লবণ – স্বাদমতো
তেল – ৫ টেবিল চামচ
দারুচিনি – ৪/৫ টুকরো (১ ইঞ্চি সাইজের)
এলাচ – ৩টি
তেজপাতা – ২টি (মাঝারী)
ঘন তরল দুধ – ১ কাপ
চিনি – ১/২ কাপ
পানি – ৩ কাপ
লেবুর রস – ১ চা চামচ

প্রণালীঃ

মুরগীর মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। এবার পেঁয়াজ কুচি, দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা, আস্ত কাঁচামরিচ, তেল, পানি ও দুধ বাদে বাকী উপকরণগুলো মুরগীর মাংসে ভাল করে মেখে ১০ মিনিট রেখে দিন।এবার পাত্রে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি হালকা করে ভেজে নিন। মসলা মাখানো মাংসগুলো দিয়ে নেড়ে দিন। তারপর দারুচিনি, এলাচ, তেজপাতা দিয়ে মাংসটা ২৫-৩০ মিনিট রান্না করুন (কষানো)। মাংস কষানো হলে এবার ৩ কাপ পানি দিন। ঝোল ফুটে উঠলে অল্প আঁচে ঢেকে রান্না করুন। মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলে হালকাভাবে নেড়ে দিন। ঝোল ঘন হয়ে এলে দুধ ও কাঁচামরিচ দিয়ে আরো ৫ মিনিট চুলায় দমে রাখুন (নামানোর ৫ মিনিট আগে দুধ দিলে রান্নার স্বাদ ও রঙ সুন্দর থাকে)। হয়ে গেল কাঁচামরিচে সাদা মুরগী। এবার নামিয়ে পোলাওর সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।ভূলু, অক্টোবর ২০১০, চট্টগ্রাম

পোষ্টটি লিখেছেন: ভূলু | ভূলু'স রেসিপি

ভূলু | ভূলু'স রেসিপি এই ব্লগে 94 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আমি 'ফজলুর নূর ভূলু'। আমার রান্নাঘরের অরিজিনাল সব রেসিপি নিয়েই আমার এই ব্লগ - "ভূলু'স রেসিপি"। এই রেসিপি ব্লগের মাধ্যমে আমি দেশি খাবার আর তার অতুলনীয় স্বাদের বৈচিত্র তুলে ধরতে চাই। সাথে আমাদের আঞ্চলিক এবং ঐতিহ্যবাহী রান্নাগুলোও থাকবে। ভবিষ্যতে এইসব রেসিপি আর ব্লগের গল্পগাঁথা নিয়ে একটি বই প্রকাশের ইচ্ছে আছে।

happy wheels

আমার রেসিপি গুলো আপনার ভাল লাগলে শেয়ার করুন -

PinIt

7 thoughts on “কাঁচামরিচে সাদা মুরগী

  1. rashida

    ধন্যবাদ।
    আমাদের বাসায় রোজার ঈদে পোলাওয়ের সাথে এই রান্না হয়, আমরা বলি মিষ্টি কোরমা। বাচ্চা মুরগির (দেশি মুরগি) মিষ্টি কোরমা পরোটার সাথে বিকালের নাস্তা হিসাবে কিংবা অতিথি আপ্যায়ণে চমৎকার লাগে।
    আপা, ভালো আছেন। দেরি হয়ে গেল আপনাকে লিখতে। ব্যস্ত থাকি, সময় বের করতে পারিনি।
    রশিদা আফরোজ

    Reply
  2. ভূলু (ভূলু'স রেসিপি) Post author

    মিষ্টি কোরমা সুন্দর নাম।
    পরটার সাথে আমার ছেলেও এই রান্নাটার ঝোল খুব পছন্দ করে। মুরগীর মাংসটা যদি পরিমিত সিদ্ধ হয় তাহলে ঝোলসহ খুবই ভাল লাগে।

    ধন্যবাদ ভাই তোমাকে।

    Reply
  3. জিসান

    দারুন জিনিস। আমার মা প্রায়ই করে এ জিনিসটা, পোলাওয়ের সাথে অসাধারন লাগে এটা।

    আপু, মাংসের আরো মজার মজার রেসিপি দিন।

    Reply
  4. ভূলু | ভূলু'স রেসিপি Post author

    ভাই জিসান ধন্যবাদ আপনাকে মন্তব্যের জন্য।

    এই রান্নাটা আমার মেঝ মেয়ে অনেক পছন্দ করে, ওর বান্ধবীরাও। পোলাওয়ের সাথে সত্যিই অসাধারণ।

    আমি চেষ্টা করবো আমার রেসিপিগুলো আপনাদের সাথে শেয়ার করতে। আপনারাও চাইলে এই ব্লগে আপনাদের মজার রেসিপিগুলো ছবিসহ শেয়ার করতে পারেন।

    ভাল থাকবেন।

    Reply
  5. কায়সার

    আমি আপনার এই রেসিপি অনুসারে মুরগি রান্না করেছিলাম।রং বেশ ভাল হয়ছে,কিন্তু মুখে দিয়ে দেখলাম অতিরিক্ত মিস্টি।আমি জানতে চাইছিলাম যে চিনি আধাকাপ পরিমাণটা কি ঠিক আছে নাকি ভুলবস্ত লেখা হয়েছে?

    Reply
  6. ভূলু | ভূলু'স রেসিপি Post author

    এই রান্নাটি আসলে “মিষ্টি কোরমা”, তাই একটু মিষ্টিই খেতে হবে। তবুও আপনি যদি এই পরিমাণ মিষ্টি পছন্দ না করেন তাহলে চিনির পরিমাণ অর্ধেক বা ২ টেবিল চামচ করে দিতে পারেন। আশাকরি ভাল লাগবে।

    কেমন হল জানাবেন। ধন্যবাদ।

    Reply
  7. Eshita Ghosh

    আমি টেবিল চামচ / কাপ এর পরিমান টা বুঝি না
    যদি একটু clear করতেন

    ধন্যবাদ

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

© 2006 www.vulusrecipe.com. All rights reserved.
ভূলু'স রেসিপি | বাংলাদেশের রান্নাঘর

Facebook

Get the Facebook Likebox Slider Pro for WordPress