গরুর মগজ ভূনা (Brain Masala)

“ব্রেইন মাসালা (Brain Masala Recipe)” কিংবা “মগজ ভূনা” যে নামেই বলুন, রেসিপিটি যেকোন দিক থেকেই স্পেশাল। কারণ সারা বছর ধরে আমরা গরুর মাংস খেলেও মগজের কোন রেসিপি নিয়ে খুব একটা ভাবিনা। তবে কোরবানী ঈদে তেমন বাড়তি কোন আয়োজন ছাড়াই আমরা ঘরে গরুর মগজ ভুনা কিংবা কলিজা ভুনা’র মত স্পেশাল কোন রেসিপি করতেই পারি। তাই আজ আপনাদের জন্য এই রেসিপিটি নিয়ে এলাম।
গরুর মগজ ভুনা রেসিপিটি চেয়েছেন আমার ছেলের এক বন্ধু। ছেলেটি ডাক্তার, ঢাকায় বড় একটা হাসপাতালে হার্ট নিয়ে কাজ-কারবার। ডাক্তারের অনুরোধেই রেসিপিটি আজ সন্ধ্যায় লেখা। এ বছর অবশ্য ঘরে এখনো গরুর মগজ ভুনা করিনি, তবে আজ গরুর কলিজা ভুনা করেছি দুপুরে।
Brain Masala Recipe বা গরুর মগজ ভূনা

গরুর মগজ ভূনা, ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহিত

উপকরণঃ

উপকরণের তালিকা একটু লম্বা দেখালেও আসলে খুব সামান্য এবং হাতের কাছে পাওয়া যায় এমন উপকরণ দিয়েই করেছি রেসিপিটি। নারকেল দুধের ব্যবহারটাই শুধু ভিন্ন, এর জন্য স্বাদটাও হবে দারুণ। কুরানো নারকেল পাটায় পিষে পানিতে চটকে ছেঁকে রসটুকু আলাদা করে নারকেলের দুধ করতে পারেন।
  • গরুর মগজ – ৩ কাপ
  • পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ
  • আদা বাটা – ১ চা চামচ
  • রসুন বাটা – দেড় চা চামচ
  • জিরা বাটা – ১/২ চা চামচ
  • ধনে গুঁড়ো – ১/২ চা চামচ
  • মরিচ গুঁড়ো – ১/২ চা চামচ
  • হলুদ গুঁড়ো – ১/২ চা চামচ
  • এলাচ, দারুচিনি, লং একত্রে বাটা – ১/২ চা চামচ
  • তেজপাতা – ২টি
  • কাঁচামরিচ – ৩টি
  • নারকেল দুধ (ঘন) – ১ কাপ
  • লবণ – স্বাদমতো
  • তেল – ১ কাপ
  • ধনেপাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ

প্রস্তুত প্রণালীঃ

প্রথমে গরুর মগজ হালকা হাতে ধুয়ে সামান্য লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। সেদ্ধ করা মগজ ঠান্ডা করে চটকে নিন। এবার কড়াইতে তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি ভাজুন, হালকা বাদামী রঙ হলে নামিয়ে নিন। এরপর ধনেপাতা, কাঁচামরিচ, নারকেল দুধ ও মগজ বাদে সব উপকরণ/মশলা ভাজা পেঁয়াজে দিয়ে দিন। ভাল করে নেড়ে ২/৩ মিনিট ধরে কষান। এরপর এই কষানো মশলায় চটকানো মগজ দিয়ে আরো ১০ মিনিট ধরে রান্না করুন। এ সময় ভাল করে নাড়তে হবে। এবার (১০ মিনিট পরে) নারকেল দুধ ও কাঁচামরিচ দিয়ে আরো ৫ মিনিট নেড়ে রান্না করুন। নামানোর আগে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিন। তৈরি হয়ে গেল মগজ ভুনা।

রুটি কিংবা গরম ধোয়া ওঠা ঝর-ঝরে ভাতে এই মগজ ভুনা অসাধারণ লাগবে।

ভূলু, চট্টগ্রাম, ১৮/১১/২০১০

happy wheels

About ভূলু | ভূলু'স রেসিপি

আমি 'ফজলুর নূর ভূলু'। আমার রান্নাঘরের অরিজিনাল সব রেসিপি নিয়েই আমার এই ব্লগ - "ভূলু'স রেসিপি"। এই রেসিপি ব্লগের মাধ্যমে আমি দেশি খাবার আর তার অতুলনীয় স্বাদের বৈচিত্র তুলে ধরতে চাই। সাথে আমাদের আঞ্চলিক এবং ঐতিহ্যবাহী রান্নাগুলোও থাকবে। ভবিষ্যতে এইসব রেসিপি আর ব্লগের গল্পগাঁথা নিয়ে একটি বই প্রকাশের ইচ্ছে আছে।

৫ thoughts on “গরুর মগজ ভূনা (Brain Masala)

  1. rashida

    ধন্যবাদ বুলু আপা। অনেকদিন পর আপনার কাছ থেকে রেসিপি পেলাম। কেমন আছেন? বাসায় নিশ্চয় এখন গরুর মাংসের বিভিন্ন আইটেম বানানো হচ্ছে?
    আপা, আমাদের ফেনীর বাসায় মগজের সাথে গরুর জিবটা বিশেষ ব্যবস্থায় মিশিয়ে ভাজা হয়। দারুণ লাগে।
    নারকেল দিয়ে রান্না যেকোনো রান্না আমার বরের খুব প্রিয়। আপনার মতো করে মগজ ভুনা করবো একদিন, ইনশাল্লাহ।
    ভালো থাকবেন। আপনার ছেলেমেয়েদেরকে আমার শুভেচ্ছা জানাবেন।
    আপনার জন্য শুভকামনা। শুভেচ্ছা। ভালোবাসা।
    রশীদি আফরোজ

  2. ভূলু

    অনেক ধন্যবাদ রশীদা। অনেকদিন পর এই ঈদের পরই আমার ছেলেসহ একটা রেসিপি দিলাম, আরো কিছু রেসিপি দেব। আপনাদের এমন সুন্দর মন্তব্য পেলে অনেক ভাল লাগে।

    ওদের বাবাও নারকেল দেয়া যেকোন রান্না অনেক পছন্দ করেন, আর আমি বিরক্ত হই নারকেল দিয়ে রান্না করতে। তবে নারকেল রান্নার স্বাদে যে বৈচিত্র আনে তাতে কোন সন্দেহ নাই। এখন অবশ্য ডায়াবেটিসের কারণে নারকেলের ব্যবহার আমার ঘরে খুবই সীমিত। মগজ ভুনার সাথে ছোট ছোট টুকরা করে জিহবাটা দারুণ লাগে, আমি করি। আবার গরুর জিহবাটা আলাদা করে ভুনা করলেও খুবই ভাল লাগে, একটু কুরকুরে স্বাদ।

    আপনার বর আর আপনাকেও অনেক শুভেচ্ছা, ভাল থাকবেন। ও আমার ছেলে বলেছিল আপনি রেসিপি দেবেন, কবে পাব আপনার রেসিপি?

    ভাল থাকবেন। শুভ কামনা রইল।

  3. ভূলু (ভূলু'স রেসিপি) Post author

    দৈনিক ভোরের কাগজের রানা ভাইকে অনেক ধন্যবাদ।

    উনি গত শীতে আমার অনেকগুলো স্যুপের রেসিপি ছেপেছেন ভোরের কাগজে। রেসিপি গুলোর রঙ্গিন ছাপা দেখে খুবই ভাল লেগেছিল। আমার মেয়েরা সবগুলো পত্রিকা সংগ্রহ করে রেখেছে। এছাড়া চট্টগ্রামের শুঁটকির এবং চাটনীর রেসিপিও ছেপেছেন।

    এরপর নতুন কোন রেসিপি দিতে পারিনি আমার ব্যস্ততার জন্য।

    রানা ভাই আপনাকে আর আপনার পত্রিকার সবাইকে অনেক ধন্যবাদ।

    ভাল থাকবে।

Comments are closed.