পুদিনা পাতার চা

পুদিনা পাতার চা, Mint Tea

তাজা পুদিনা পাতার চা, তা সে গরম কিংবা ঠান্ডাই হোক, মুহুর্তেই চাঙ্গা করে দেবে আপনাকে। হারবাল এই চায়ের অন্যান্য স্বাস্থ্য উপকারিতাতো রয়েছেই। আজকের রেসিপিতে আমি পুদিনা পাতার গরম চা তৈরি করেছি। তবে পুদিনা পাতার চায়ে কোন “চা” পাতা দেয়া হয়নি। পরবর্তিতে কখনো চা পাতার লিকার এবং পুদিনা পাতার মিশ্রণে তৈরি চায়ের আরেকটি রেসিপি দেয়ার ইচ্ছে রইল।

একই রেসিপিতে বরফ শীতল চা খেতে চাইলে ঠান্ডা করে রেফ্রিজারেটরে রেখে পরে খেতে পারেন। গরমে খুবই আরাম দেবে।

এক কাপ গরম-গরম পুদিনা পাতার চা রাতে ঘুমোতে যাবার আগেও খেতে পারেন। দারুণ লাগবে। পুদিনা পাতা ছাড়াও আপনি স্বাদ অনুযায়ী আরো নানান হারবাল উপকরণ কিংবা মশলা (যেমন- দারুচিনি, লবঙ্গ) মেশাতে পারেন। মধু মেশাতে পারেন মিষ্টি চায়ের জন্য। যাদের ডায়াবেটিস আছে কিংবা চিনি-মধু এড়িয়ে চলেন, তারা চিনির বিকল্প ব্যবহার করতে পারেন।

মরক্কোর একটি বিখ্যাত চা হলো “আতাই চা”। সেটাও তৈরি হয় পুদিনা পাতা দিয়ে। মরক্কোর ঘরে ঘরে অতিথি আপ্যায়নে পুদিনা পাতার চায়ের প্রচলন বহুদিনের। মরক্কোর পুদিনা চায়ের (Moroccan Mint Tea) একটি রেসিপি কয়েকদিনের মধ্যেই ব্লগে দেব।

উপকরণঃ

(২ কাপ চায়ের জন্য)

  • ২ কাপ পানি
  • দেড় কাপ তাজা পুদিনা পাতা
  • ১ চা চামচ লেবুর রস (চাইলে দিতে পারেন)

অথবা

  • ২ কাপ পানি
  • ১ টেবিল চামচ শুকনা পুদিনা পাতা
  • ১ চা চামচ লেবুর রস (চাইলে দিতে পারেন)

প্রস্তুত প্রণালীঃ

তাজা পুদিনা পাতার চা –

পুদিনা পাতা কুচি করে নিন। পানি ফুটিয়ে নিন। পুদিনা পাতা কাপে রেখে ফুটানো গরম পানি ঢালুন। চা পান করার আগে এ অবস্থায় পাতার নির্জাস ছড়ানোর জন্য ৩-৫ মিনিট রেখে দিতে পারেন। চাইলে লেবুর রস মেশাতে পারেন। মিষ্টি চায়ের জন্য মধু/চিনি/বিকল্প চিনি দিতে পারেন। হয়ে গেল পুদিনা পাতার চা।

মরক্কোর শুকনা পুদিনা পাতা

মরক্কোর শুকনা পুদিনা পাতা

শুকনা পুদিনা পাতার চা –

শুকনা পুদিনা পাতা টি পটে রাখুন, ফুটানো গরম পানি মিশিয়ে নাড়ুন। শুকনো পাতা থেকে রস বেরুনোর জন্য ৩-৫ মিনিট সময় দিতে পারেন। চাইলে ১ চামচ লেবুর রস মেশাতে পারেন। মিষ্টি চায়ের জন্য মধু/চিনি/বিকল্প চিনি দিতে পারেন।

পুদিনা পাতার চা ঠান্ডা খেতে চাইলেঃ চা গরম থাকতেই এতে মধু/চিনি/বিকল্প চিনি মেশান। ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় (room temperature) ঠান্ডা করে রেফ্রিজারেটরে রাখুন। পরিবেশনের সময় টুকরা বরফের সাথে তাজা কয়েকটা পুদিনা পাতাও ছিড়ে দিতে পারেন। পুদিনা পাতার তাজা সুবাশটা ভাল লাগবে।

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত।

happy wheels

About ভূলু | ভূলু'স রেসিপি

আমি ‘ফজলুর নূর ভূলু’। আমার রান্নাঘরের অরিজিনাল সব রেসিপি নিয়েই আমার এই ব্লগ – “ভূলু’স রেসিপি”। এই রেসিপি ব্লগের মাধ্যমে আমি দেশি খাবার আর তার অতুলনীয় স্বাদের বৈচিত্র তুলে ধরতে চাই। সাথে আমাদের আঞ্চলিক এবং ঐতিহ্যবাহী রান্নাগুলোও থাকবে। ভবিষ্যতে এইসব রেসিপি আর ব্লগের গল্পগাঁথা নিয়ে একটি বই প্রকাশের ইচ্ছে আছে।